গুগোল এ্যাডসেন্স কি?

এ্যাডসেন্স হলো বিখ্যাত টেক জায়ান্ট গুগলের একটি জনপ্রিয় অ্যাপ্লিকেশন। গুগলের এই সেবাটি আর একটি নামে পরিচিত, আর তা হলো ”গুগল এ্যাডসেন্স”। গুগল অ্যাডসেন্সের সাহায্যে বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের মাধ্যমে, প্রায় যে কেউ দ্রুত কোনও ব্লগ বা ওয়েবসাইট থেকে উপার্জন শুরু করতে পারেন। আবেদনের মাধ্যমে অ্যাপ্রভাল নিয়ে এ্যাডসেন্সের মাধ্যমে প্রায় সকল ওয়েবসাইটের এ্যাডমিন বা মালিকেরা তাদের সাইটে গুগোলের এ্যাড দিতে পারেন। যেহেতু আপনি আপনার সাইটে গুগোলের দেওয়া এ্যাড প্রোমোট করছেন তাই গুগোল আপনাকে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ দিবে। কিন্তু এতে গুগোলের কি লাভ, তাই না?

আসলে গুগোল এ্যাডসেন্স এর মতোই আর একটি গুগোলের প্রোগ্রাম আছে। এ্যাডসেন্স এর মাধ্যমে যেভোবে আপনি আপনার ওয়েবসাইটে বিভিন্ন ধরণের বিজ্ঞাপন দেখাতে পারেন, ঠিক তেমনি আপনিই আবার গুগোলকে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ দিয়ে আপনার যে কোন পন্যের জন্য অন্যের সাইটে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন। এই জন্য গুগোল এর আর একটি সেবা আছে। এটি হলো “গুগোল এ্যাডওয়ার্ডস্‌”।

গুগোলের ওয়েবমাষ্টার বা অন্যান্য আরো অনেক অনেক বড় বড় যেসব ওয়েবমাষ্টার আছে তারা তাদের সাইটের বা তাদের পণ্যের প্রচারের জন্য গুগোলের এই সেবা ব্যবহার করে থাকে। আজকাল অনেক নতুন ও অচেনা ছোট-খাটো কোম্পানীগুলোও কিন্তু তাদের পণ্যের দ্রুত প্রচার ও প্রসারের জন্য গুগোল এ্যাডওয়ার্ডস্‌ ব্যবহার করে।

গুগোল এ্যাডওয়ার্ডস্‌ দ্বারা যে সকল ওয়েবমাষ্টার তাদের বিজ্ঞাপন প্রচার করে, তাদেরকে এজন্য গুগোলকে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ প্রদান করতে হয়। আর গুগোল সেই অর্থ বিতরণ করে দেয় সবার (বিজ্ঞাপন প্রকাশকদের) মাঝে । আপনি যদি আপনার ওয়েবসাইটে গুগোল এ্যাডসেন্স এর ব্যবহারের মাধ্যমে গুগোলের দেওয়া বিজ্ঞাপন দেখান তাহলে গুগোল আপনাকে আপনার সাইটে প্রচারিত বিজ্ঞাপন এ প্রতি ক্লিক এর উপর ভিত্তি করে অর্থ প্রদান করবে।

এজন্য আপনাকে তেমন কোন কষ্টই করতে হবে না। গুগোল এ্যাডসেন্স আপনাকে একটি কয়েক লাইনের মাত্র জাভা স্ক্রীপ্ট এর একটি কোড দেবে এবং সেই কোডটি আপনাকে গুগোলের দেওয়া নির্দেশ অনুযায়ী আপনার ওয়েবসাইটের নির্দিষ্ট স্থানে বসিয়ে দিলেই হবে। আপনাকে আর অন্য কিছুই করতে হবে না। গুগোল আপনার সাইটের সকল লেখা, তথ্য, সাইটের টাইটেল এবং আপনার সাইটে আসা ভিজিটরদের সম্পর্কে কিন্তু ঠিকই বুঝতে পারে। আর এভাবেই গুগোল আপনার সাইটে বিজ্ঞাপন দিবে।

এ্যাডসেন্স এ্যাকাউন্ট পাওয়া অবশ্য তেমন সহজ বিষয় নয়। তারপরও গুগোল এর নিয়ম-নীতি অনুযায়ী চললে কিন্তু গুগোল ঠিকই আপনাকে এ্যাডসেন্স এ্যাকাউন্ট না দিয়ে কোথায় যাবে বলেন তো? কারণ, গুগোল তো ব্যবসা করার জন্যই বসে আছে। তাহলে তারা কেন দেবে না এ্যাডসেন্স এ্যাকাউন্ট!

গুগোল এ্যাডসেন্স থেকে যখন আপনার $১০০ আয় হবে তখন আপনি গুগোল থেকে আপনার ঠিকানায় চেক পাবেন ঐ টাকা তোলার জন্য, ওথবা ওয়্যার ট্রান্সফারের মাধ্যমে আপনার ব্যাংক একাউন্টে সহজেই টাকা আনতে পারেন। এজন্য অবশ্য আপনাকে আপনার ঠিকানা ভেরিফাই সহ ছোট খাট ঝামেলা পোহাতে হবে। যাই হোক, এগুলো নিয়ে অন্য একদিন আলোচনা করা যাবে। আপাতত আজকে তো গুগোল এ্যাডসেন্স এবং গুগোল এ্যাডওয়ার্ডস্‌ সম্মন্ধে কিছুটা হলেও জানলেন। এর পরে বিস্তারিত সব লিখবো ধীরে ধীরে।

ততদিন পর্যন্ত সাথেই থাকুন আর লেখাটা কেমন হয়েছে সেটা জানাতে কিন্তু ভুলবেন না? নাকি?

“সবাই ভালো থাকুন এবং সুস্থ থাকুন এবং আপনার ওয়েবসাইট থাকলে গুগোল এ্যাদসেন্স দ্বারা আয় করুন আর স্বাবলম্বী হউন। আর ওয়েবসাইট না থাকলে খুব শীঘ্রই নিজে নিজেই তৈরী করে ফেলুন আর কোন সমস্যা হলে আমি তো আছিই।”

👉 অনুরূপ পোস্ট সমূহ 👇

লেখক সম্পর্কে: হাই, আমি আতিক, এই ব্লগের লেখক এবং প্রতিষ্ঠাতা। আমি একজন পার্ট টাইম ব্লগার, ইন্টারনেট মার্কেটার, এসইও এবং ওয়েব ডিজাইন এক্সপার্ট। বিস্তারিত দেখুন…

0 comments… add one

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *